Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
ব্রেকিং:

ফিলিপাইনের ম্যানিলার ক্যাসিনো থেকে ৩৬ জনের মরদেহ উদ্ধার

ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলার একটি ক্যাসিনো থেকে অন্তত ৩৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তারা সবাই দম বন্ধ হয়ে মারা যান বলে দাবি কর্তৃপক্ষের। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ৫৪ জন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এ খবর জানিয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে এক সন্দেহভাজন বন্দুকধারী রিসোর্টস ওয়ার্ল্ড ম্যানিলার এক ক্যাসিনোতে ডাকাতির চেষ্টা করে। সন্দেহভাজন বন্দুকধারী ক্যাসিনোর ভেতর নিজ শরীরে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যা করে।

ক্যাসিনোতে আটকে পড়া ব্যক্তিদের মধ্যে অন্তত ৩৬ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ম্যানিলার পুলিশ প্রধান অস্কার আলবায়ালদে। তাদের মধ্যে ওই সন্দেহভাজন ছাড়াও ১৩ জন ক্যাসিনো কর্মী এবং ২২ জন অতিথি রয়েছেন বলে তিনি নিশ্চিত করেন। তারা ক্যাসিনোর তৃতীয় তলায় আটকা পড়েছিলেন বলে ধরণা করা হচ্ছে। মরদেহের শরীরে কোনও গুলি পাওয়া যায়নি। তারা দম বন্ধ হয়ে মারা যান বলে পুলিশ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

এদিকে, এক বিবৃতিতে ক্যাসিনোর মালিক রিসোর্টস ওয়ার্ল্ড ম্যানিলা জানিয়েছে, ওই ঘটনায় সন্দেহভাজন বন্দুকধারী ছাড়া ৩৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৫৪ জন। তারা মর্মান্তিক এ ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

এর আগে অস্কার আলবায়ালদে এক রেডিও সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, ‘আমাদের ধারণা তিনি (সন্দেহভাজন বন্দুকধারী) নিজের শরীরে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যা করেন।’

ওই সন্দেহভাজন বন্দুকধারী ক্যাসিনোতে প্রবেশ করে ফাঁকা গুলি চালানো শুরু করে। এতে কেউ গুলিবিদ্ধ না হলেও ক্যাসিনো থেকে বের হওয়ার সময় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

এ ঘটনাকে জঙ্গি হামলা বলে মনে করছেন না ফিলিপাইনের পুলিশ ও প্রশাসন। প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুয়ার্তের মুখপাত্র আর্নেস্তো আবেল্লা বলেন, ‘সব তথ্য সেদিকেই নির্দেশ করছে যে, মানসিকভাবে বিশৃঙ্খল কোনও ব্যক্তি এ অপরাধের সঙ্গে জড়িত। সন্দেহভাজন ব্যক্তি সতর্কতামূলক গুলি চালিয়েছিল। যার মানে, কাউকে হতাহত করতে চাননি তিনি।’

দেশটির পুলিশ প্রধান রোনাল্ড ডেলা রোজা ডিজেডএমএম রেডিওকে বলেন, ‘আমরা এর সঙ্গে জঙ্গিবাদের কোনও সম্পর্ক দেখছি না। বরং আমরা এতে ডাকাতির বিষয়টিই দেখতে পাচ্ছি। জঙ্গি হামলা হলে ওই ব্যক্তি ক্যাসিনোতে থাকা মানুষদের ওপর হামলা চালাতো। কিন্তু তিনি তা করেননি। বরং তিনি ফাঁকা গুলি চালিয়েছেন।’

ক্যাসিনোতে পুলিশি অভিযানের কিছু সময় পরই ডেলা রোজা জানিয়েছিলেন, ‘পুলিশের গুলিতে সন্দেহভাজন ডাকাতের মৃত্যু হয়েছে।’ তবে পরে তিনি বলেন, ‘ওই সন্দেহভাজন ব্যক্তি নিজ শরীরে আগুন ধরিয়ে আত্মহত্যা করে।’

দেশটির পুলিশ প্রধান আরও বলেন, ‘এখন হয়ত আতঙ্ক ছড়াতে এ ঘটনাকেও জঙ্গিরা তাদের হামলা উল্লেখ করে তার দায় স্বীকার করতে পারে।’

উল্লেখ্য, জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলীয় মিন্দানাও প্রদেশে বর্তমানে জরুরি অবস্থা জারি করে রেখেছেন প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুয়ার্তে।

ফিলিপাইনের সেনাবাহিনীর মুখপাত্র রেস্টিটুটো পাডিল্লা এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমরা পুরো অবস্থাটি পর্যবেক্ষণ করছি। ঘটনাটি পুলিশ তদন্ত করছে। এ ঘটনার পুরো ছবিটা সামনে আসার পর আমরা একটি বিবৃতি দেবো।’

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*