Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
ব্রেকিং:

২০০৮ সালে শাকিবের সঙ্গে বিয়ে হয়: ছেলে নিয়ে লাইভে অপু

চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস দাবি করেছেন, চিত্রনায়ক শাকিব খানের সঙ্গে ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল তার বিয়ে হয়েছে। তাদের এক পুত্রসন্তানও আছে। নাম আব্রাহাম খান জয়। শাকিব খানের চাপেই এতোদিন বিয়ের খবর গোপন করেছিলেন তিনি।

সোমবার (১০ এপ্রিল) আকস্মিকভাবেই বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল নিউজটোয়েন্টিফোরের সরাসরি অনুষ্ঠানে (লাইভ) এসে এ দাবি করেন অপু। প্রায় ১০ মাস লোকচক্ষুর অন্তরালে থাকার পর প্রথম কোনো গণমাধ্যম হিসেবে চ্যানেলটির লাইভে কথা বলেন এ চিত্রনায়িকা।

লাইভে অপু নিয়ে আসেন তার শিশুসন্তানকেও। তিনি বলেন, এ সন্তান আমার আর শাকিব খানের।

অপু প্রথমেই বিয়ের কথা বলেন। জানান, ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিবের গুলশানের বাড়িতে দুই পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতে তাদের মধ্যে বিয়ে হয়। অতি গোপনীয়তায় বিয়ের কাজ সারেন তারা। বিয়ের সময় শাকিবের বাড়িতে তার ভাই ও বাড়ির লোকজন, অপুর মেজো বোন এবং প্রযোজক মামুনুজ্জামান মামুন ছিলেন। বিয়ের কাজী এসেছিলেন শাকিবের গ্রামের বাড়ি গোপালগঞ্জ থেকে। ইসলাম ধর্মমতে বিয়ে হয় তাদের। অপু বিশ্বাসের নতুন নাম রাখা হয় অপু ইসলাম খান।

তবে বিয়ের বিষয়টি এতোদিন গোপন রাখার কারণ হিসেবে অপু দাবি করেন, শাকিবের ইচ্ছাতেই এতোদিন এ বিষয়টি গোপন করে রেখেছিলেন তিনি।

লোকচক্ষুর আড়ালে থাকা ও সন্তান জন্মদানের বিষয়ে অপু বলেন, ১০ মাস অনেক কষ্ট করেছি আমি…অনেক সহ্য করেছি। আর কতো সহ্য করবো? আমিও তো মানুষ। আমার ভেতরে ভালো মন্দ আছে।

তিনি জানান, ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর কলকাতার একটি ক্লিনিকে তাদের সন্তান আব্রাহামের জন্ম হয়। কিন্তু সেসময় শাকিব পাশে ছিলেন না। পিতা হিসেবে শাকিব খান দায়িত্বও নেননি। কেবল টাকা পয়সা দিয়েই তিনি দায়িত্ব শেষ করেছেন।

এ চিত্রনায়িকা মর্যাদার দাবি তুলে বলেন, শাকিব আমাকে ছোট করে দিয়েছে। আমি সব সময় চেয়েছি ওর ভালো হোক। এ কারণে বিয়ে ও সন্তানের খবর গোপন করেছি। কিন্তু ও আমার মর্যাদা রাখেনি। ওর উপেক্ষা ছিলো অনেক যন্ত্রণার। শেষ পর্যন্ত আর সহ্য করতে না পেরে মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছি। আমি স্ত্রী হিসেবে ওর সন্তানের মর্যাদা চাই। আমি চাইছি ও আমার পাশে থাক…।

পুত্র সন্তানকে শাকিব খানের ঔরসজাত সন্তান দাবি করে অপু বিশ্বাস বলেন, তার সন্তানকে যেন বাবার স্নেহ থেকে বঞ্চিত না করা হয়।

তবে এমন ‘উপেক্ষা’র শিকার হলেও অপু এখনও শাকিব খানের কোনো ক্ষতি চান না। বরং চান শাকিবের ভালো হোক, শাকিব খান যেন তার ক্যারিয়ারে আরও উন্নতি করেন।

শাকিবের সঙ্গে তার সম্পর্কের ‘অবনমনে’র জন্য নবাগতা চিত্রনায়িকা বুবলী আলোচনায় আসা প্রসঙ্গে অপু জানান, বুবলীকে নিজের প্রতিদ্বন্দ্বী ভাবেন না অপু। দীর্ঘ সময় লোকচক্ষুর আড়ালে থাকার সময়ে শাকিব তার নতুন নায়িকা হিসেবে বেছে নেন টিভি উপস্থাপিকা বুবলীকে। অপুর দাবি, তার ছেড়ে যাওয়া সিনেমাতেই মূলত কাজ করার সুযোগ পায় বুবলী।

তবে বুবলীর জন্য শুভকামনা জানিয়ে তিনি বলেন, বুবলী কাজ করছে, করুক। কিন্তু বুবলীর বুঝতে পারা উচিত, শাকিবের স্ট্যাটাসটা কী, শাকিব আর আমার সম্পর্কটা কী…।

শিগগির কাজে ফেরার প্রত্যয় ব্যক্ত করে তিনি বলেন, কী কী সিনেমা অসমাপ্ত রেখেছিলাম, সব মনে আছে। শিগগির কাজে ফিরবো।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*