Download WordPress Themes, Happy Birthday Wishes
ব্রেকিং:

অভয়নগরে ভেঙ্গে পড়া বাজার মনিটরিং ব্যবস্থায় নিয়ন্ত্রণহীন পণ্যের দাম : নিরব বাজার কমিটি

বিশেষ প্রতিবেদক:
অভয়নগরে পবিত্র রোজার প্রথম দিন থেকেই উপজেলার একটি বাজারেও খুচরা ও পাইকারী ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে টাঙ্গানো হয়নি সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য তালিকা। ভেঙ্গে পড়া বাজার মনিটরিং ব্যবস্থার সুযোগ কাজে লাগিয়ে ফায়দা লটুছে ব্যবসায়ীরা। নিয়ন্ত্রণহীন পণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী করেছে ভোক্তারা।
বাজার কমিটির নিরবতা পালন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং যশোর জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালকের আশ্বাস দ্রæত সময়ের মধ্যে সরকারী নির্দেশ অমাণ্যকারী ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করে বাজার মনিটরিং ব্যবস্থা সচল করা হবে।
সরেজমিনে গতকাল শুক্রবার ৪র্থ রমজানের দিন সকালে উপজেলার ছোট-বড় বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, মুদি, স্টেশনারী, মাছ, মাংশ, কাঁচাবাজারসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকানে সরকারী নিদের্শনা মোতাবেক পণ্যের মূল্যে তালিকা টাঙ্গানো ছিল না।
এ ব্যাপারে পাইকারী ও খুচরা কয়েকজন ব্যবসায়ীর সাথে কথা হলে তারা জানায়, কোন তালিকা ? সরকারী নির্দেশনা অমাণ্যের বিষয়ে তারা আক্ষেপ করে বলেন, আমরাও সরকারের লোক। বেশী দামে কিনি, বেশী দামে বিক্রি করি। তালিকার দরকার কি ?
বিভিন্ন বাজার ঘুরে ভোক্তাদের সাথে কথা বলে জানা যায়, নিয়ন্ত্রণহীন পণ্যের দাম। রোজার একদিন আগে ৪০ টাকা কেজি দরের শসা প্রথম রোজায় ছিল ৭০ টাকা, আজ কিনতে হচ্ছে ৮০ টাকা কেজি দরে। বেগুন কেজি প্রতি বেড়েছে ২০ টাকা, আলুসহ একই অবস্থা প্রায় সব ধরণের কাঁচামালে। বাজার মনিটরিং এর নেই কোন ব্যবস্থা। সাথে বাজার কমিটির নিরবতা ও স্বেচ্ছাচারিতায় আমাদের মত ক্রেতারা পড়েছে বিপাকে। ভোক্তা অধিকার সাইনবোর্ড নামে কিছু আছে বলে তারা জানেনা।
এ ব্যাপারে অভয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাহীনুজ্জামান বলেন, দ্রæত সময়ের মধ্যে বাজারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হবে। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য তালিকা না থাকলে সেই সব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
যশোর জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক ওয়ালিদ বিন হাবিবের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ভোক্তার অধিকার নিশ্চিত করতে আমরা বদ্ধ পরিকর। অভয়নগরের ইউএনও এর সাথে পরামর্শ করে দ্রæত সময়ের মধ্যে বাজার মনিটরিং ও ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করার আশ্বাস দেন তিনি। নওয়াপাড়া বাজার কমিটির সভাপতি গাজী নজরুল ইসলামের সাথে কথা হলে তিনি বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন বলে জানান।
জানা গেছে, পবিত্র রমজানের শুরুতে নওয়াপাড়া পৌরসভার পক্ষ থেকে সকল পাইকারী ও খুচরা ব্যবসায়ীদের প্রতি সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক স্ব স্ব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য তালিকা টাঙ্গাতে মাইকিং করা হয়েছিল।

Print Friendly, PDF & Email

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*